1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

উন্নয়নের জন্য ইটের অভাবে চলমান উন্নয়ন কাজে বিঘ্ন সৃষ্টি হবে। ফটিকছড়িতে ব্রিক ফিল্ড মালিক সমিতির সভায় বক্তরা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৬৯ Time View

রফিকুল আলম

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি ব্রিক ফিল্ড মালিক সমিতির এক সভা ৩০ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় বিবিরহাট বাজারের কার্যালয়ে সমিতির সভাপতি ও পৌর সভার মেয়র আলহাজ্ব ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত হয়।

সমিতির সাধারণ সম্পাদক শফিউল আজমের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন,সহ-সভাপতি আমিনুল হক,আবুল হাসেম,শহিদ মিয়া,যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন ও অর্থ সম্পাদক মোঃ শহিদুল্লাহ। সভায় বক্তারা বলেন, বর্তমানে হাইকোর্টের আদেশে পরিবেশ অধিদপ্তরের চলমান অভিযানের ৯টি ইটভাটা গুড়িঁয়ে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। আর ২ টি ইট ভাটা হতে জরিমানা আদায় করেছে। বর্তমান সরকারের নানা মূখী উন্নয়নে ফটিকছড়িতে চলতি বছর প্রায় ৫ কোটির উপরে ১ নং ইটের প্রয়োজন।

এখন যে সব ফিল্ড রয়েছে; সব গুলো ফিল্ড চলমান থাকলে ও ৩/৪ কোটির উপরে ১ নং ইট উৎপাদন করতে পারবে না। আর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবর্ষের প্রায় ৬ শত ঘরের জন্য ৭ হাজার করে কয়েক লাখ ইটের প্রয়োজন রয়েছে। তাছাড়া স্থানীয় লোকের ঘর বাড়ী তৈরীতে ও কয়েক কোটি ইটের প্রয়োজন রয়েছে। অন্যদিকে স্থানীয় ঠিকাদার ও নানা শ্রেনীর মানুষ ইটের জন্য অগ্রিম টাকা দিয়েছে। ফলে চলতি মৌসুমে ইটের অভাবে উপজেলা,স্থানীয় সরকার,সড়ক ও জনপদ, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, সহ সরকারের চলমান উন্নয়ন কাজে চরম ভাবে বিঘ্ন সৃষ্টি হবে।

বক্তারা আরো বলেন, বর্তমান সরকার গ্রাম হবে শহর প্রতিপাদ্য নিয়ে উন্নয়নের যে রোড ম্যাপ নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে, তার চলমান গতিকে স্থবির করার জন্য কোন অদৃশ্য হাত কাজ করছে কি না, তাও দেখা প্রয়োজন। সভায় বক্তরা আরো বলেন, ভ্যাট, আইটি, খাজনা,শ্রম অধিদপ্তরের ছাড় পত্র ও বিএসটি আই সহ প্রতি বছর একটি ব্রিক ফিল্ড ৮ লক্ষ টাকার উপরে রাজস্ব প্রদান করে থাকে। সেই সাথে সরকারের উন্নয়নের বড়ো মাপের যোগান দাতা, ইট ভাটার মালিক গন মনে করেন সরকার কতৃক নির্ধারিত সমূদয় রাজস্ব আদায়ের পরেও কেন ইট ভাটা অবৈধ হবে মালিক গনের বিশ্বাস করেন এসব রাজস্ব আদায় করা না হলে আমরা বুঝতে পারতাম; ব্রিক ফিল্ড আর চালানো যাবেনা। প্রতিটি ইট ভাটায় দুই/আড়াই শত শ্রমিক কাজ করে জিবীকা নির্বাহ করে। এসব শ্রমিকের পরিবার গুলো মানবেতর জীবন যাপন করতে হবে।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com