1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৮:২৩ অপরাহ্ন

চন্দনাইশ রাউলিবাগে ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী মাহফিল উদযাপনচন্দনাইশ রাউলিবাগে ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী মাহফিল উদযাপন

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৯১ Time View

আমিনুল ইসলাম রুবেল,চন্দনাইশ

চন্দনাইশ বরমা রাউলীবাগে বড় পীর আবদুল কাদের জালানী (র:) এর স্মরণে ও কর্ণ ছেদন উপলক্ষে  ঈদ-এ-মিল্লাদুনবী (দ:) অনুষ্টিত হয়েছে। গত ২৮ নভেম্বর বাদে আছর হতে উপজেলার বরমা ব্রিকফিল্ড রোড রহমত আলীর বাড়িতে কাতার প্রবাসী মো. এনামের কন্যা মোসাম্মৎ তৈয়বা সুলতানা নিষ্পা ও মারিশা সুলতানা ইকরা এর কর্ণ ছেদন উপলক্ষে এই আজিমুশশান নূরানী মিলাদ মাহফিল উদযাপিত হয়েছে। উক্ত মিলাদ মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন কাতার প্রবাসী মোহাম্মদ এনাম। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলার ভাইচ চেয়ারম্যান মাওলানা সোলাইমান ফারুকী। এতে প্রধান ওয়াজিন হিসেবে তকরির করেন বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন সুন্নি জনতার প্রাণ স্পন্দন বায়তুন নূর জামে মসজিদ অক্সিজেন চট্টগ্রাম এর খতিব আলহাজ্ব মাওলানা মোহাম্মদ ওমর ফারুক নঈমী। প্রধান বক্তা হিসেবে তকরির করেন কাজী এবাদুল্লাহ শাহ (রহঃ) তৈয়বিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসার সহ-সুপার মাওলানা মোঃ আবু ইউসুফ নুর আল কাদেরী। বিশেষ আলোচক ছিলেন পশ্চিম চর গাউছিয়া তৈয়বিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসা সিনিয়র মুদাররিস মাওলানা মোঃ কামরুদ্দিন নূরী আল কাদেরী। মাওলানা মোঃ আবুল হাশেম,পেশ ইমাম রাউলিবাগ বাইতুল আমান জামে মসজিদ পেশ ইমাম মাওলানা মোহাম্মদ আলী, রাউলিবাগ পুরাতন জামে মসজিদ পেশ ইমাম মাওলানা মোঃ আব্দুল খালেক। এই সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ এনাম, সেলিম উদ্দিন,আব্বাস উদ্দিন, আবদুর রহমান,মোহাম্মদ রিদোয়ান, মোহাম্মদ আজগর প্রমুখ। এসময় বক্তারা বলেন, কুতুবে রব্বানি মাহবুবে সুবহানি শায়খ সাইয়্যিদ আবদুল কাদের জিলানী (রহ.) (৪৭১-৫৬১ হিজরি) মুসলিম বিশ্বের পতন যুগে পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছিলেন ইসলামের শাশ্বত আদর্শকে। তার মাধ্যমেই ইসলাম পূর্বের অবস্থায় ফিরে এসেছিল। এ জন্যই তার উপাধি ছিল মুহীউদ্দীন। হজরত আলী (রা.)-এর শাহাদাতের ৭০০ বছর পর হজরত বড় পীরের মাধ্যমেই সেই জায়গা পূরণ হয়েছে।

১ রমজান ৪৭১ হিজরিতে ইরাকের অন্তর্গত জিলান জেলার কাসপিয়ান সমুদ্র উপকূলের নাইদ নামক স্থানে বড়পীর হজরত আবদুল কাদের জিলানী (র.) জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম হজরত আবু সালেহ মুছা জঙ্গি (র.) ও মাতার নাম সৈয়দা উম্মুল খায়ের ফাতেমা (র.)। স্রষ্টার চূড়ান্ত দীদার লাভের উদ্দেশ্যে ১১ রবিউস সানি ৫৬১ হিজরি রোজ সোমবার ইহজগৎ ত্যাগ করেন। বর্তমানে ইরাকের বাগদাদ শহরে তাঁর মাজার শরিফ রয়েছে। গাউসুল আজম বড়পীর হিসেবে তিনি সবার কাছে পরিচিত। গাউসুল আযম বড় পীর হজরত আবদুল কাদের জিলানি (র.)-এর ওফাত দিবস বিশ্বের মুসলমানদের কাছে ‘ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম’ নামে পরিচিত।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com