1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০৩:৫৪ পূর্বাহ্ন

ধোপাছড়ির জিরোবুক ব্রীজটির কাজের ধীরগতি একটি ব্রীজের অভাবে থমকে আছে দূর্গম ধোপাছড়িবাসীর ভাগ্য

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২ আগস্ট, ২০২১
  • ৩ Time View

এসএম রাশেদ


চন্দনাইশ উপজেলার দুর্গম ১০নং ধোপাছড়ি ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষের স্বপ্ন প্রতিপ্রফল ও ভাগ্যের চাকা পরিবর্তন হচ্ছে না শুধুমাত্র দোহাজারী দিয়াকুল-ধোপাছড়ি জিরু বকছড়ার ওপর নির্মিত একটি ব্রীজের অভাবে। পাহাড় ঘেরা দূর্গম ধোপাছড়িবাসীর দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি’র ঐকান্ত প্রচেষ্টায় ২০১৮সালে ৪ নভেম্বর ব্রিজের কাজ শুভ উদ্বোধন মাধ্যমে স্বপ্ন বাস্তবায়ন শুরু হয়েছিল।

কিন্তু ব্রীজটির কাজ পাওয়া ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান আনোয়ার কনষ্ট্রাকশন প্রায় ৮১ মিটার পিসি গার্ডর ব্রিজটির কাজ দীর্ঘ ৪ বছরও শেষ করতে না পারায় ধোপাছড়িবাসীর মনে চরম ক্ষোভের সঞ্চার সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, দূর্গম ধোপাছড়ি ইউনিয়নবাসীর ভোগান্তি লাঘব করার মানসে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর জিরু বক ছড়ার ওপর ব্রিজ নির্মাণের জন্য দরপত্র আহ্বান করেন।

পরবর্তীতে ৪ কোটি ১২ লাখ ৪ হাজার ৮৭৬ টাকা ব্যয়ে ঢাকাস্থ আনোয়ার কনস্ট্রাকশন কাজ পাওয়ার পর বিগত ২০১৮ সালের ৪ নভেম্বর সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি ব্রিজের কাজ উদ্বোধন করেন। কিন্তু কাজ শুরু করলেও অদ্যবদি নামে মাত্র কয়েকজন শ্রমিকদিয়ে কাজ চালিয়ে যাওয়ার ফলে কার্যাদেশ সময়ের দ্বিগুন সময় পেরিয়ে যাওয়ার ফলে ধোপাছড়িবাসীর স্বপ্ন বাস্তবে সুফল পাচ্ছে না। ফলে তাদের লালিত স্বপ্নে গুড়োবালি পড়ছে। এতে কৃষকরা নার্য্য মূল্যে থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ফলে উৎপাদিত রবি-শষ্যের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছে না।

এছাড়া চিকিৎসা সেবার কারণে মাতৃকালী,শিশু ও বৃদ্ধার মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে, শিক্ষার্থীরা স্কুল কলেজে যাতায়তের কারণে অনেক শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়ছে। নানা দিকে পিছিয়ে পড়ে রয়েছে ধোপাছড়িবাসী। ব্রীজটি সম্পন্ন হওয়ার সাথে উভয় পাশে কিছু অংশ কাচা সড়ক রয়েছে সেই সড়কও সংস্কার করা জরুরী বলেও ধোপাছড়িবাসী জানান।

চিড়িংঘাটা এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবদুল আলীম বলেন, দোহাজারী টু ধোপাছড়ি সড়কের জিরোবুক ব্রীজটি ধীরগতি কাজ চলছে ফলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনার গ্রামকে শহর করার যে ভীষণ তা ধোপাছড়িতে এ উন্নয়নের সুফল থমকে পড়েছে। স্বাধীনতার আগে থেকে ধোপাছড়িবাসীর একমাত্র মাধ্যম ছিল নৌ পথ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম এমপির আন্তরিক প্রচেষ্টায় দূগর্ম এলাকায় সড়ক ও জিরোবক ছড়ার উপর ব্রীজ নিমার্ণের কাজ শুরু হয়। কিন্তু ঠিকাদারের গাফলতির কারণে আদৌ ব্রীজটি সম্পন্ন হয়নি। যার ফলে ধোপাছড়ির মৌলিক নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। যেখানে ৪ বছরের মধ্যে বিশ্বের দীর্ঘতম পদ্মা সেতু নিমার্ণ মেষে এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। সামান্য ৮১ মিটার পিসি গার্ডার জিরোবক ব্রীজটির কাজ ৪ বছর পেরিয়ে গেলেও আদৌ সম্পন্ন হয়নি এটি সত্যিই ধোপাছড়িবাসীর জন্য দুঃখ জনক। যেখানে মিয়ানমার নাগরিক শরণার্থী হিসেবে বাংলাদেশে এসে যে সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে বাংলাদেশের ভূখন্ডের বাসিন্দা হয়ে ধোপাছড়ির মানুষ গুলো সে সুবিধা পাচ্ছে না।

এব্যাপারে এলজিইডি প্রকৌশলী রেজাউন নবী বলেন, ব্রীজটি দূর্গম পাহাড়ী এলাকায় হওয়ার ফলে নানা সমস্যার কথা স্বীকার করে বলেন ৮০% কাজ শেষ হয়েছে। বাকী কাজগুলোও সহসায় সম্পন্ন হতো কিন্তু ঠিকাদারের শ্রমিকরা ঈদে বাড়ীতে যাওয়ার পর লকডাউনের কারণে আসতে না পারায় কাজ বন্ধ রয়েছে। এছাড়া ঠিকাদারকে বার বার তাগিদ দেওয়া হচ্ছে। যাতে দ্রুত সময়ে কাজ শেষ করার জন্য।

সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার আনোয়ার কনস্ট্রাকশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ার রাজু আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, সামান্য অল্প কাজ বাকী আছে শ্রমিকের অভাবে তা লকডাউনের জন্য দ্রুত শেষ করা যাচ্ছে না। লকডাউন স্বাভাবিক হলে দ্রুত সময়ে কাজ সম্পন্ন করা হবে বলে জানান।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com