1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৩২ পূর্বাহ্ন

রাউজান উপজেলা পরিষদ ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শোভা পাচ্ছে বাহারি ফুল

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১
  • ৫০৬ Time View

প্রদীপ শীল, রাউজানঃ

রাউজান উপজেলা পরিষদ ও উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এখন শোভা পাচ্ছে শীতকালীন রঙ বে-রঙের বাহারি জাতের ফুল। ফুলে ফুলে জুলুস উঠেছে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সরকারী প্রতিষ্ঠান গুলো।

সরকারী বেরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এছাড়ও পাশাপাশি উপজেলার বেসকারি প্রতিটি প্রতিষ্ঠান গুলোতে এখন নানা ফুলের বাহারী দৃষ্টি নন্দন ও মনোমুগ্ধকর। প্রতিটি ক্যাম্পাসের অগ্রভাগে বিচিত্র নানা রকমের ফুরের সমারোহ চোখ ধাঁধাঁনো। ফুলের এই উপজেলা পরিদর্শন করলে মনে হবে ফুলের রাণী রাউজান। প্রতিটি ক্যাম্পাসে এক ভিন্ন মাত্রা এনে দিয়েছে ফুলে ফুলে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন কালে দেখা গেছে, এবার করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষক-শিক্ষার্থী না থাকায় সুনশান নিরব আছেন সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলো। এর পরও কোন কাজে সরকারী অফিস ও কলেজ ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসা শিক্ষার্থীদের যেনো আপন মনে বরণ করে নিচ্ছে নানা রঙের বাহারি ফুলগুলো। রাউজান উপজেলা পরিষদ, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট), ইমাম গাজ্জালী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, নোয়াপাড়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, রাউজান সরকারি কলেজ, গহিরা ডিগ্রী কলেজসহ প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রশাসনের উদ্যোগে ক্যাম্পাসে গড়ে তোলা হয়েছে নানা ধরণের ফুরের বাগান।

এছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন সরকারি প্রশাসনিক ভবনগুলোতে গড়ে তোলা হয়েছে এই ফুলের বাগান। বাগানগুলোর দিকে তাকালে মনে হয় যেনো সারা রাউজানে ফুলের মেলা বসেছে। বাগান গুলো পরিচর্যার দায়িত্বে আছেন নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের মালিরা। প্রায় প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন প্রজাতির দেশি-বিদেশি ফুল শোভা পাচ্ছে। এবিষয়ে রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, রাউজানের সাংসদ রাউজানকে গ্রীণ ও ক্লিন রাউজানে পরিনত করতে কাজ করছেন। উন্নয়ন অগ্রযাত্রার পাশাপাশি সড়ক পাশে ফলজ গাছ রোপন করেছেন।

সাংসদের নির্দেশে ফুল ও ফলের উপজেলা গড়ে তোলার কাজ শুরু করেছি। ফুলের পরশে নৈসিক ইমাম গাজ্জালী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যক্ষ মো: আবদুল জব্বার চৌধুরী বলেন, আমি দায়িত্ব পেয়ে আমাদের ক্যাম্পাসটি আরাও আকর্ষনীয় ও দৃষ্টিনন্দন করার স্বপ্ন জাগে।

রাউজানের সাংসদ এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী নানা চিন্তা ভাবনায় যখন কলেজটি দিনের পর দির সৌন্দর্য হয়ে উঠেছে তখন আমি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসবে দায়িত্ব পাওয়ার পর কলেজে একটি দৃষ্টিনন্দন ফুলের বাগান করার পরিকল্পনা হাতে নিলাম। যাতে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে এসে কিছুটা আনন্দ উপভোগ করতে পারে। এতে ক্যাম্পসের পরিবেশ যেমনি সুন্দর দেখায়, তেমনি শিক্ষার্থীরাও আনন্দ পান। ক্যাম্পাসে মনোরম পরিবেশে পাঠদান নিশ্চিত করতে ফুলের বাগান গড়ে তোলা প্রয়োজন।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com