1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

লোহাগাড়ায় পূজা উদযাপন কমিটির নামে চাঁদা অাদায়ের অভিযোগ

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৬ আগস্ট, ২০২০
  • ১৫৭ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক,লোহাগাড়া:

লোহাগাড়ায় পূজা উদযাপন কমিটির বিরুদ্ধে অাসন্ন শারদীয় দূর্গোৎসবের পূজামন্ডপ কমিটির কাছ থেকে চাঁদা অাদায়ের অভিযোগ ওঠেছে। দূর্গাপূজার মন্ডপ কমিটির তালিকা জমা নেওয়ার নামে এ চাঁদা অাদায় করছে বলে উপজেলার ৯ ইউনিয়নের বিভিন্ন পূজামন্ডম কমিটির নেতৃবৃন্দ এ অভিযোগ তুলেন। জানা যায় বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, লোহাগাড়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার খোকন কান্তি নাথ ও অর্থ সম্পাদক কাঞ্চন অাচার্য্যের নেতৃত্বে উপজেলার প্রত্যেক পূজামন্ডপ কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের কাছ থেকে এ চাঁদা অাদায় করা হচ্ছে। চাঁদা না দিলে সরকারী অনুদানের তালিকা থেকে পূজামন্ডপের নাম বাদ দেয়া হবে বলে এ চাঁদা নিচ্ছে বলে জানান মন্ডপ কমিটির নেতৃবৃন্দ।

পশ্চিম কলাউজান মনমহাজন পাড়া সার্বজনীন দূর্গোপূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক পল্লী চিকিৎসক খোকন কান্তি নাথ বলেন, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার খোকন কান্তি নাথ ও অর্থ সম্পাদক কাঞ্চন অাচার্য্য অামার চেম্বারে এসে গত বছরের বকেয়া ৩০০ টাকা ও এ বছরের ৩০০ টাকা দিতে হবে বলে ৬০০ টাকা নিয়েগেছে। টাকা না দিলে তালিকা থেকে পূজামন্ডপের নাম বাদ দিবে বলায় অামি বাধ্য হয়ে টাকা দিয়েছি। একই ইউনিয়নের অাদারচর শান্তিরাম সিকদারপাড়া সার্বজনীন দূর্গাপূজা কমিটির সভাপতি উৎপল কান্তি দেব পিন্টু বলেন মাষ্টার খোকন কান্তি নাথ অামাকে ফোন করে কমিটির তালিকা ও ৬০০ টাকা জমা দিতে বলেন। তবে অামি গতবছর উপজেলা প্রশাসনের অাইনশৃংখলা মিটিং এর গিয়ে জানতে পেরেছিলাম সরকারী অনুদানের টাকা নেওয়ার জন্য কোন চাঁদা নেওয়া হয়না। তাই অামি এখনও কমিটিও জমা দিইনি এবং টাকা দিইনি।

উত্তর বড়হাতিয়া রুদ্রপাড়া সর্বমঙ্গলা কালীমন্দির সার্বজনীন দূর্গাপূজা কমিটির সভাপতি পরিমল রুদ্র বলেন বড়হাতিয়ার ডা: রাজিব রুদ্র পূজা পরিষদের কথা বলে অামাকে ফোন করে কমিটির তালিকার সাথে ৬০০ টাকা নিয়ে তার সাথে দেখা করতে বলেন এবং টাকা না দিলে সরকারী তালিকা থেকে অামাদের পূজামন্ডপের নাম বাদ যাবে বলে জানান। চরম্বা বিবিবিলা নাথপাড়া সার্বজনীন দূর্গাপূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ শীল বলেন মাষ্টার লিটন বিশ্বাস অামাকে ফোন করে টাকা ও কমিটির তালিকা দিতে বলে। অামি শহরে থাকায় মধু দেবনাথের মাধ্যমে কমিটির তালিকা পাঠালে তার কাছ থেকে ৩০০ টাকা নিয়েছে। পুটিবিলা নাথপাড়া জাগ্রত যুব পরিষদ সার্বজনীন দূর্গাপূজা কমিটির সভাপতি অাশুতোষ দেবনাথ বলেন পূজা কমিটি থেকে ফোন করে প্রতিবছরের ৩০০ টাকা করে দুই বছরের ৬০০ টাকা নিয়ে কমিটির তালিকা জমা দিতে বলেন। তবে অামরা এখনও কমিটির তালিকা জমা দিইনি। পূর্বকলাউজান ধরপাড়া সার্বজনীন দূর্গাপূজা কমিটির সভাপতি সজল ধর বলেন,অামাদের কমিটির অর্থসম্পাদক রাসেল ধরকে ফোন করে ৬০০ টাকা নিয়ে তালিকা জমা দিতে বলেন।

যেহেতু অামরা গত বছরও পূজা কমিটিকে চাঁদা দিইনি তাই এখনও কমিটির তালিকা জমা দেইনি। এব্যাপারে লোহাগাড়া পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার খোকন কান্তি নাথ চাঁদা নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন এগুলো বার্ষিক সদস্য চাঁদা। ঘটপূজা ২০০ টাকা ও প্রতিমাপূজা ৩০০ টাকা টাকা চাঁদা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ চাঁদা জমা নাদিলে অামার তাদের পূজামন্ডপের তালিকা উপজেলায় জমা দিবনা। লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: তৌছিফ অাহমেদ বলেন, পূজামন্ডপে সরকারী অনুদান পাওয়ার জন্য পূজাকমিটি কর্তৃক চাঁদা নেওয়া সম্পূর্ণ অন্যায়। চাঁদা নেওয়ার বিষয়টি অামি অবগত নই। তবে এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করলে যথাযতভাবে অাইনগত ব্যবস্থা নেব।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com