1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৬:৫৮ অপরাহ্ন

লোহাগাড়ায় কলেজ ছাত্রকে মারধরের জেরে থানায় অভিযোগ করায় ফের মারধরের শিকার

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ৮ জুলাই, ২০২০
  • ১৬৭ Time View


মোঃ সাইফুল ইসলাম,লোহাগাড়াঃ
লোহাগাড়ায় উত্তর চরম্বা দেওয়ান আলী সিকদার পাড়া এলাকায়, মোস্তফা আল হোসাইন ইমরান (২১) নামে এক কলেজ ছাত্রকে কতিপয় দুর্বত্তরা অকারনে বেদড়ক পিটিয়ে মারধর করে গভীর নির্জন পাহাড়ের ভিতরে টেনে হেছড়া করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ৬ জুলাই (সোমবার) থানায় একই এলাকার আহমদ উল্লাহর পুত্র নুরুল আবছার,শহিদ ও শামসুল আলমের পুত্র জসিম উদ্দিনের ( জসিম মেম্বার) বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের পর পুলিশ কেন এলাকায় তদন্ত করতে গেল! তাঁর জের ধরে পুনরায় ইমরান ও তার এক প্রতিবন্ধী চাচাকে মারধর করার গুরুত্বর অভিযোগ পাওয়া যায়।
এব্যাপারে,ভূক্তভোগী পটিয়া সরকারী কলেজের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অনার্স ১ম বর্ষের ছাত্র ইমরান, উল্লেখিত এলাকার রফিক সিকদারের পুত্র এ প্রতিবেদককে জানান, গত ৪ জুলাই রাত অনুমান সাড়ে ৮ ঘটিকায় আমি বাড়ীর পার্শ্বস্থ স্থানীয় দোকানে বাজার করতে গেলে এলাকার নুরুল আবছার,তোমার সাথে জরুরী আলাপ আছে বলে আমাকে ডেকে অন্ধকারে নিয়ে যায়।এবং কোন-কিছু বুঝে উঠার পুর্বেই আমাকে কিল-ঘুষি-লাথি মারতে মারতে পার্শ্ববর্তী পাহাড়ের দিকে নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যে টানা-হেঁচড়া করলে আমার শৌর চিৎকারে স্থানীয় আশ-পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আবছার কৌশলে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় আমি থানায় লিখিত অভিযোগ করার পর এএসআই শ্যামল দত্ত গত সোমবার বিকাল অনুমান ৪টার দিকে ঘটনার বিষয়ে তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে যায়। এতে প্রতিপক্ষরা আরো বেশী ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতঃ আমাকে ও আমার চাচা প্রতিবন্ধী শফিক আহমদ সিকদারকে গলা টিপে ধরে কিল-ঘুষি-লাথি মেরে গুরতর আহত করে। এসময় স্থানীয় লোকজন দুর্বত্তদের হাত থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। শুধু তাই নয়, প্রতিপক্ষরা আমাকে ও আমার চাচাকে মারধর করেও শান্ত হননি। এখন তারা প্রতিনিয়ত আমাকে সহ পুরো পরিবারকে প্রাননাশের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে।যার ফলে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যবৃন্দ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।
এ ঘটনায় সোমবার রাতেই পুনরায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভুক্তভোগী।

ইমরান আরো জানান, প্রতিপক্ষরা খুব হিংস্র ও সন্ত্রাসী। জামায়াতের দুধর্ষ ক্যাডার। তাদের বিরুদ্ধে নাশকতা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৮/১০টি মামলা রয়েছে থানায়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ঘটনা তদন্তে যাওয়া এএসআই শ্যামল দত্ত বলেন, সোমবার বিকেলে কলেজ ছাত্র ইমরানের ওপর হামলার ঘটনায় দাযেরকৃত অভিযোগ তদন্তে গিয়েছিলাম। আমি তদন্ত করে যথারীতি চলে আসি। আসার পথে খবর পেয়েছি যে, বাদি-বিবাদি কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পুনরায় মারধর করেছে ।

এ প্রসঙ্গে লোহাগাড়া থানার ওসি জাকের হোসাইন মাহমুদ বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়ে পুনরায় ঘটনাস্থলে এসআই অজয়দেব শীলকে পাঠিয়েছি। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com