1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০:০৫ অপরাহ্ন

শহীদ অধ্যক্ষ নূতন চন্দ্র সিংহের পুত্র মুক্তিযোদ্ধা প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহকে রাষ্ট্রীয় মার্যাদায় শেষকৃত্যানুষ্ঠান

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৫৫ Time View

প্রদীপ শীল, রাউজানঃ

করোনাভাাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করা শহীদ অধ্যক্ষ নূতন চন্দ্র সিংহের কনিষ্ঠি ছেলে বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফুল্ল সিংহ (৮১) কে রাষ্ট্রীয় মার্যাদায় সম্মান জানানোর পর শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল ৪ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টায় রাউজান পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের পূব গহিরা কুণ্ডেশ্বরী এলাকায় রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জোনায়েদ কবির সোহাগের উপস্থিতিতে পুলিশ সদস্যরা গার্ড অব অনার দিয়ে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সম্মান জানান। পরে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবকবৃন্দ তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী।

পুষ্পমাল্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, সাংবাদিক, রাজনৈতিক, মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠন, সামাজিক সংগঠনসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে চট্টগ্রাম নগরীর বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহ মারা যান। কিডনি, হার্টের রোগে আক্রান্তের মধ্যে প্রফুল্ল রঞ্জনের কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। জানা যায়, ১৯৭১ সালে তার পিতাকে হত্যার অভিযোগে যুদ্ধাপরাধীর দায়ে সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্য দিয়েছিলেন প্রফুল্ল। ১৯৭১ সালের ১৩ এপ্রিল সকালে রাউজানের গহিরার কুণ্ডেশ্বরীতে নিজ বাড়ির মন্দিরের সামনে হত্যা করা হয় তার বাবা দানবীর নূতনচন্দ্রকে। পাকিস্তানি বাহিনীর সঙ্গে সালাউদ্দিন কাদের নিজেই নূতন চন্দ্রকে গুলি চালিয়েছিলেন।

মৃত্যুকালে তিনি এক ছেলে, দুই কন্যা সন্তানসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। মুক্তিযুদ্ধের বীর সেনানী দেশ বরণ্য সফল উদ্যোক্তা দানবীর প্রফুল্ল সিংহের মৃত্যুর পর গাউছিয়া কমিটি বাংলাদেশ এর একটি টিম তাদের নিজস্ব গাড়ী নিয়ে তাঁর মরদেহ সকাল ৯টায় কুণ্ডেশ্বরী ভবণে নিয়ে আসে। সেখানে মরদেহের স্নান ও শেষযাত্রার নতুন কাপড় পরিধান করান গাউছিয়া কমিটির সেচ্ছাসেবক টিম। গাউছিয়া কমিটি বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ¦ মোছাহের উদ্দিন বখতিয়ার ও জেলা কমিটির নেতা আলহাজ¦ আহসান হাবিব চৌধুরীর নেতৃত্বে সৎকার টিম শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্ন না হওয়া পষর্ন্ত অপেক্ষা করেন। গাউছিয়া কমিটি বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক মোছাহের উদ্দিন বখতিয়ার জানান, চট্টগ্রামে এই পষর্ন্ত ১২ শত করোনায় মৃত্যু হওয়া মানুষের দাফন করেছেন গাউছিয়া কমিটি। এছাড়া ২২জন হিন্দু বৌদ্ধেও লাশ সৎকার করেছি। আজকে রাউজানে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহের লাশ আমরা সৎকারে এগিয়ে এসেছি। দেশের যেই কোন প্রান্তের লোক ফোন করলে আমরা গাড়ী নিয়ে হাজির হয়েছি। এখানে হিন্দু, মুসলিম ও বৌদ্ধ চিন্তা করি নাই। মানুষ হিসাবে আমরা সম্প্রীতির বন্ধণ রচনা করেছি। এই সম্প্রীতির নামই হচ্ছে ধর্ম।

মরদেহে শ্রদ্ধা জানাতে আসা রাউজান পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ জমির উদ্দিন পারভেজ বলেন, মুক্তিযোদ্ধা প্রফুল্ল সিংহের মৃত্যুতে পুরো রাউজানে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। যথাযোগ্য মার্যাদায় উনাকে দাহ করা হয়েছে। এসময় তিনি গাউছিয়া কমিটি সৎকারে এগিয়ে আসায় কৃতজ্ঞতা জানান। এমসয় উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক বশির উদ্দিন খান, পৌর কাউন্সিলর এডভোকেট সমীর দাশ গুপ্ত, কাউন্সিলল শওকত হাসান, যুবলীগ নেতা জিয়াউল হক রোকন, আবু ছালেকসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। অপরদিকে প্রায়াত প্রফুল্ল সিংহের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাউজান শ্রী শ্রী জগন্নাথ সেবাশ্রম পরিচালনা পরিষদের নেতৃবৃন্দ।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com