1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৫৮ অপরাহ্ন

সম্পত্তি লিখে নিয়ে বাড়ি থেকে বিতারিত করা ক্যান্সার আক্রান্ত পিতা বিছানায় সংকটাপন্ন

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২২
  • ৮৪ Time View

প্রদীপ শীল, রাউজানঃ
রাউজানের গহিরা ইউনিয়নের কোতোয়ালীঘোনা এলাকার ক্যান্সার রোগ আক্রান্ত ৮০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধের কাছ থেকে নিজের ছেলে জোরপূর্বক হেবা দলিলে বাড়ি ভিটা লিখে নিয়ে ঘর থেকে বের করে দেওয়া মোহাম্মদ সামশুল আলম এখন মৃত্যুশয্যায়ী। বর্তমানে তিনি হাটহাজারী উপজেলায় তার বড় মেয়ের শাশুড় বাড়িতে অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছে। জানা যায়, প্রতারণার শিকার বৃদ্ধ সামশুল আলম ঘটনা জানিয়ে যুগ্ম জেলা জজ আদালতে ছেলে ও ছেলে বউ এর বিরুদ্ধে মামলা করেছে (মামলা নং ১৮৫/২০২২)। এই মামলার আর্জিতে জোর করে প্রতারণার মাধ্যমে সৃষ্ট হেবা দলিল বাতিলের আবেদন করা হয়েছে। মেয়ে বাড়িতে অবস্থানকারী শামশুল আলম বলেছেন তিনি ক্যান্সার আক্রান্তে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন। গত চারমাস আগে তার ছেলে সেলিম উদ্দিন তাকে ফুসলিয়ে কৃষি ব্যাংক থেকে লোন নেয়ার কথা বলে গাড়ী করে রাউজান সদরে নিয়ে এসে। এরপর তার কাছ থেকে ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে অনেকক্ষণ বসিয়ে রেখে আবার বাড়িতে নিয়ে যায়। এই ঘটনার পর গত ১৪ এপ্রিল হঠাৎ করে প্রতারক পুত্র সেলিম ও তার স্ত্রী বৃদ্ধের আরেকপুত্র বেদারের স্ত্রী এসে বলে বাড়ি ভিটা ছেড়ে শাশুরকে বের হয়ে যেতে। সেলিমের স্ত্রীর দাবি ছিল তার শ্বাশুর ভিটা তাদের ও তাদের দুই পুত্রের নামে লিখে দিয়েছে। সর্বশেষ পুত্র সেলিম ও স্ত্রীর চাপে বৃদ্ধ সামশুল আলম নিজের বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয় বলে বৃদ্ধ সামশুল আলমের কন্যারা জানিয়েছে। পিতার বাড়ি ভিটা প্রতারণার মাধ্যমে দখল করার বিষয়টি নিয়ে কথা বললে পুত্র সেলিমের দাবি তার পিতা স্বেচ্ছায় তাদের সম্পতি লেখে দিয়েছেন। তার বোনরাই বাড়ি থেকে তাদের বাবাকে নিয়ে গেছে। অপরদিকে বৃদ্ধ সামশুল আলমকে নিয়ে মানবিক সংবাদ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হলে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের দৃষ্টিগোচরে আসে। সংবাদ প্রকাশের পরের দিন রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুস সামাদ সিকদার ক্যান্সার আক্রান্ত বৃদ্ধার পাশে দাঁড়ান। তিনি বৃদ্ধার চিকিৎসা ও ভরনপোষণ যথাযথা ভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দেন পুত্রদের। অন্যতায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান নির্বাহী অফিসার। এছাড়া তরুণ প্রজম্মের আইকন সংসদপুত্র ফারাজ করিম চৌধুরী বাড়ি ভিটা প্রতারণার মাধ্যমে হারানো বৃদ্ধার পাশে দাঁড়ান। তিনি বিষয়টি অমানবিক উল্লেখ করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উপর দায়িত্ব দেন। এছাড়া সংসদপুত্র বৃদ্ধাকে বিভিন্ন উপহার প্রদান করেন। এরপর নড়েচরে বসে স্থানীয় চেয়ারম্যান। স্থানীয় চেয়ারম্যান নুরুল আবছার বাঁশি উভয় পক্ষকে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে সমঝোতার চেষ্টা করেন। সেখানেও কোন সমাধান দিতে পারেননি এ চেয়ারম্যান। শেষমেষ বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর হস্তক্ষেপে সমঝোতায় বসেন ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। বৃদ্ধার বাড়িতে সমঝোতার বৈঠকে পুরোপুরি সমাধান আসে এই বৈঠকে। কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতে সবকিছু ভেস্তে যায় সমঝোতার সিন্ধান্ত। পুত্ররা দিচ্ছেনা পিতার ভরনপোষণ, দিচ্ছেনা চিকিৎসা খরচ। এই অবস্থায় মৃত্যুর দিকে দাপিত হচ্ছে ক্যান্সার আক্রান্ত সামশুল আলম। তিনি বিছানায় মৃত্যুশয্যায়ী মেয়ের বাড়িতে। জীবন সংনিকটে থাকা সামশুল আলম শেষ ইচ্ছে নিজ বসত ঘরে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করতে। কিন্তু বৃদ্ধার শেষ ইচ্ছাও অনিশ্চিত বলে আশঙ্খা করেন স্থানীয় লোকজন।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com