1. Eskander211@gmail.com : MEskander :
  2. rashed.2009.ctg@gmail.com : চাটগাঁইয়া খবর : চাটগাঁইয়া খবর
মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন

সরকারি নিষেধাজ্ঞায় পরিত্যক্ত হিলটপ পার্ক, ভৌতিক পার্ক ভেবে পর্যটকদের আনাগোনা

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১
  • ২ Time View

আরমান হোসেন, আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম জেলার একটি ঐতিহাসিক স্হান দেয়াং পাহাড়।এটি কর্ণফুলী নদীর তীরে আনোয়ারা ও কর্ণফুলী উপজেলায় অবস্হিত।দেয়াং পাহাড় অনেক ইতিহাস,ঐতিহ্য ও স্মৃতি বিজড়িত।অপরূপ সৌর্ন্দয্যের এই পাহাড় যেমন বিমোহিত করে তেমনি এর মনোমুগ্ধকর দৃশ্য দেখে প্রাণ জুড়িয়ে যাই।

পাহাড়ের উপর থেকে বটতলী গ্রামটিকে স্বপ্নের স্বর্গীয় গ্রাম মনে হয়।দেয়াং পাহাড়ের সর্ব দক্ষিণে মোহছেন আউলিয়া কলেজের পাশে দীর্ঘ কয়েক বছর পূর্বে কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন “হিলটপ পার্ক”। নান্দনিকতায় ভরপুর ও আধুনিকায়ন করে পর্যটন কেন্দ্র তৈরি করতে চেয়েছিলেন তারা।পাহাড়ের উঁচু অংশে নানা উপকরণে সমৃদ্ধ করে এটিকে রূপ দিতে চেয়েছিলেন।মোহছেন আউলিয়া কলেজের পাশে বিশাল দেয়াং পাহাড়ের গাঁয়ে শৈল্পিক নৈপুণ্যে নিমার্ণ করতে চেয়েছিল এই পার্ক।

পার্কে করা হয়েছিল সুবিশাল রাস্তা,কারুকাজ করা সিঁড়ি,হোটেল,ফুলের বাগান, নানা পশুর মূর্তি,সুইমিং পুল,রেস্তোরাসহ, আকাশি,মেহগনি ও নানা জাতের গাছ রোপণ করে সাজানো হয়েছিল এই পার্ক। পাহাড় থেকে প্রাকৃতির রূপ-বৈচিত্র্যের বাস্তব রূপ দেখা,গ্রামের অপরূপ দৃশ্য অবলোকন,দেয়াং পাহাড়ের লাল মাটির দৃশ্য,রাডার,সিএফএল ও দূর থেকে পারকি সমুদ্র সৈকত,সূর্যাস্তের দৃশ্য,জাহাজের দৃশ্য দেখার সুবিশাল ব্যবস্হাসহ নানা সৌন্দর্য্যের আধাঁরে তৈরি করতে চেয়েছিল এই হিলটপ পার্ক। নির্মানাধীন পার্ক নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ করার আগেই কাজ বন্ধ হয়ে যায়। সরকারিভাবে দেয়াং পাহাড়ে চায়না ইকোনোমিক জোনের শিল্প কারখানায় ভূমি বরাদ্দের অংশ পড়েছিল এই পার্ক।এছাড়া চলাচলের প্রধান ফটকের গেইট মোহছেন আউলিয়া কলেজের ভূমি হওয়ায় কলেজের আপত্তি ও সরকারি নিষেধাজ্ঞায় আইনি জটিলতা ও নানা সমস্যার কারণে এই হিলটপ পার্কের কাজ বন্ধ হয়ে যায়।

বর্তমানে ১০ বছর ধরে কোন সংস্কার কাজ না হওয়ায় পরিত্যক্ত অবস্হায় পড়ে রয়েছে এটি।কারুকাজ করা সিঁড়ির গাঁয়ে জম ধরেছে,বিভিন্ন পশুর মূর্তি ভেঙ্গে ধ্বংস হয়েছে,হোটেল ও রেস্তোরার স্হানে ময়লা ও আবর্জনায় ভৌতিক পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। দেখে মনে হবে প্রাচীন স্হাপত্যের একটি নির্দশন।পরিত্যক্তের সুবাদে এটি মাদক সেবিদের নিরাপদ স্হানে পরিণত হয়েছে। দিন দুপুরে চলে এখানে মাদক সেবিদের আড্ডা। বেশ কিছুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হিলটপ পার্কের পরিত্যক্ত জায়গার দৃশ্য প্রচারিত হলে দূর-দূরান্ত থেকে পর্যটকদের ঢল নামে। ফেসবুক,ইউটিউবে এটি ভৌতিক জায়গা হিসেবে পরিচিত পেয়েছে।কৌতুহলি ও জানার আগ্রহ নিয়ে ভ্রমণের নতুন স্হান হিসেবে পর্যটকদের আনাগোনায় মুখরিত এটি।

হিলটপ পার্ক গড়ে তুলার স্বপ্নদৃষ্টা মেন্না জানান, দক্ষিণ চট্টগ্রামে একটি আধুনিক পার্ক হিসেবে গড়ে তুলতে চেয়েছিলাম এটি।কোটি কোটি টাকা ব্যয় করে পার্কের কাজ করেছিলাম।সরকারিভাবে চায়না ইকোনোমিক জোনের জন্য এটি বরাদ্দ হওয়ায় কাজ বন্ধ হয়ে যায়।বর্তমানে মোহছেন আউলিয়া মাজারের দক্ষিণ পাশে “মেন্না পার্কের” কাজ চলছে।আগামী কয়েক বছরের মধ্যে এটির কাজ সম্পন্ন হবে।



Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

© All rights reserved © 2017 chatgaiyakhobor.Com